আলহাজ্ব শফিউদ্দিন আহম্মেদ ডিগ্রি কলেজ-ঝিনাইগাতী,শেরপুর

শিক্ষা প্রগতি এবং উন্নতির মূল স্তম্ভ। যেকোনো সময় এটি ব্যাপক ভূমিকা পালন করে। এটি ব্যক্তিদের আকার দেয় এবং সম্প্রদায়ের শক্তি দেয়। বাংলাদেশের শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতি নগরে, আলহাজ শফিউদ্দিন আহমেদ ডিগ্রি কলেজ শিক্ষার অবসর্পণ ও সুযোগের প্রতীক হিসাবে সম্মানিত প্রতিষ্ঠান হিসাবে উদ্দীপ্ত থাকে। এই গর্বময় প্রতিষ্ঠানটি বহু বছর ধরে স্থানীয় জনসংখ্যার জীবনযাপন পরিবর্তন করে এবং আরো উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ সৃষ্টি করে।

আলহাজ্ব শফিউদ্দিন আহম্মেদ ডিগ্রি কলেজ-ঝিনাইগাতী,শেরপুর

আলহাজ্ব শফিউদ্দিন আহম্মেদ ডিগ্রি কলেজ-ঝিনাইগাতী,শেরপুর

ঝিনাইগাতির সৌন্দর্যময় পরিবেশে অবস্থিত আলহাজ শফিউদ্দিন আহমেদ ডিগ্রি কলেজ ছাত্রদের বিভিন্ন আগ্রহ এবং অভিলক্ষ্যের সঙ্গে মিলে যেমন বিভিন্ন শিক্ষামূলক প্রোগ্রাম প্রদান করে। এই কলেজটি উচ্চতর মাধ্যমিক স্তর থেকে প্রাথমিক স্তরের শিক্ষা প্রদান করে এবং বিজ্ঞান, বাণিজ্য ও শিল্প ইত্যাদি বিভাগে বিভিন্ন বিষয়ে ডিগ্রি প্রদান করে।

[1986] সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে এই কলেজের জন্য মন্ত্রণালয়ের কৃতিত্ব অবদানগুলি এবং ছেলেমেয়ের চয়ন করায় অর্থ বিতরণ সহ পরিষ্কারভাবে শিক্ষার বাণিজ্যিকতা এবং তার চেতনার সংরক্ষণের সুন্দর ইতিহাস রয়েছে। এই প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা এবং চলমান সাফল্য এর সম্পূর্ণ বিচার শক্তি তাঁর প্রজ্ঞাপূর্ণ নেতৃত্বে আছে। প্রশাসক আলহাজ শফিউদ্দিন আহমেদ, একজন শ্রদ্ধার্হ দাতা এবং ব্যবসায়ীর স্বপ্নপূর্ণ নেতৃত্বের আলোকিত কারণেই এই প্রতিষ্ঠানটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে এবং এর চালিত সফল অবদানের জন্য। শিক্ষায় পরিবর্তনশীলতার গভীরভাবে আবদ্ধতা দেয়ার জন্য স্বর্ণময় ভবিষ্যতের স্থান নির্ধারণ করেন, যেখানে শিক্ষার্থীরা উত্কৃষ্ট পাঠদান এবং সমগ্র উন্নয়ন পাবে।

কলেজ ক্যাম্পাসটি নিজস্ব কার্যক্রম এবং শেখার একটি হাব। সমষ্টিগত এলাকায় ছড়িয়ে পড়া একটি পরিবেশে, এটি উন্নয়নশীল গড়ে তোলা ভবন, আধুনিক ক্লাসরুম, পূর্ণবস্ত্রিত বিজ্ঞান ও কম্পিউটার ল্যাব, একটি লাইব্রেরি এবং খেলাধূলার সুযোগগুলি বিশিষ্ট করে। আলহাজ শফিউদ্দিন আহমেদ ডিগ্রি কলেজের সাধারণত সুন্দর নয় মাত্র প্রচেষ্টায়, বরং শিক্ষামূলক পরিবেশ একটি সুযোগপূর্ণ পরিবেশে পরিণত। ঝিনাইগাতির শান্ত পরিবেশ কলেজের সামগ্রিক পরিবেশের অংশ হিসাবে যোগ করে, শিক্ষানুষ্ঠানের জন্য একটি শান্তিপূর্ণ বাতাস সরবরাহ করে।

কলেজের একটি প্রধান শক্তি হল তার উচ্চতর যোগ্যতাযুক্ত এবং সঙ্গতিপূর্ণ শিক্ষকমন্ডলী। শিক্ষানুভবে অভিরুচি সম্পন্ন বৃদ্ধিতে তাঁদের ছাত্রদের জ্ঞানী বৃদ্ধিতে প্রতিষ্ঠিত অভিজ্ঞ পেশাগত ব্যক্তিত্বসম্পন্ন শিক্ষক পদার্থগত প্রদর্শন প্রয়োগ করেন। তারা সক্ষম শিক্ষা প্রদানের জন্য সহযোগিতামূলক শিক্ষার পদ্ধতি, সক্রিয় সেশন এবং ব্যবহারিক প্রদর্শনী ব্যবহার করেন। কলেজ ছাত্রদের বিভিন্ন শ্রেণিতে বিশেষজ্ঞ পড়ে অতিথি পড়তে এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রের প্রশিক্ষণদাতাদের আমন্ত্রণ করে, যাতে ছাত্ররা বিভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি এবং প্রান্তিক জ্ঞান প্রাপ্ত করতে পারে।

আলহাজ শফিউদ্দিন আহমেদ ডিগ্রি কলেজ সার্বিক শিক্ষায় মতবিশ্বস্ত আছে এবং এর পরিবেশে ছাত্রদের সমগ্র উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন বহিরাগত কার্যক্রম প্রদান করে। কলেজটি খেলাধূলায়, সাংস্কৃতিক ঘটনায়, বিতর্কে এবং সম্প্রদায় সেবা কার্যক্রমে অংশগ্রহণের উপর জোর দেয়। এই প্রচেষ্টাগুলি ছাত্রদেরকে টিমওয়ার্ক, নেতৃত্ব এবং সময় পরিচালনা সহ প্রয়োজনীয় জীবন দক্ষতা বিকাশ করার সাথে সামাজিক দায়িত্ব এবং সহানুভূতির পরিবেশনা করে।

শিক্ষামূলক এবং বহিরাগত প্রোগ্রামগুলির সাথে সম্প্রতি কর্মপরিকল্পনা এবং স্থানান্তরের পর্যাপ্ত গুরুত্বও দেয়। নির্ধারিত কর্ম পরামর্শ কক্ষটি ছাত্রদেরকে তাদের সামর্থ্য এবং আগ্রহের চেহারা সনাক্ত করতে সাহায্য করে এবং উপযুক্ত কর্ম পথে তাদের পরামর্শ দেয়। কলেজটি যোগ্যতায় বিশ্বস্ত প্রতিষ্ঠানগুলি আমন্ত্রিত করে জব ফেয়ার এবং নিয়োগ পরিচালনা সংগঠন আয়োজন করে, তার ছাত্রদের জন্য কর্মসংস্থানের সুযোগ সরবরাহ করতে।

আলহাজ শফিউদ্দিন আহমেদ ডিগ্রি কলেজের প্রভাব ক্যাম্পাসের সীমান্তের বাইরেও প্রচুর। এটি স্থানীয় সম্প্রদায়ের জন্য আশা হয়ে উঠেছে, যাতে পূর্বে এই অঞ্চলে কম সংখ্যক শিক্ষামূলক সুযোগ প্রদান করা হয়। এই কলেজ থেকে পড়ুয়ারা অনেকে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সফল করিয়ে প্রতিষ্ঠানকে এবং তাদের পরিবারকে সম্মান জানানোর সুযোগ পেয়েছে। আলোচিত প্রতিষ্ঠান ছাত্রপল্লীদের উপর গর্ব করে এবং আবারও দীর্ঘস্থায়ী সংযোগ এবং আপরাধিক সহায়তার জন্য একটি দৃঢ় নেটওয়ার্ক বজায় রাখে।

ছাত্র উন্নয়নের পাশাপাশি, আলহাজ শফিউদ্দিন আহমেদ ডিগ্রি কলেজ সক্রিয়ভাবে সম্প্রদায় উন্নয়ন প্রকল্পে জোর দেয়। এটি সচেতনতা প্রচার করে, স্বাস্থ্য শিবির, এবং সামাজিক কল্যাণ প্রোগ্রাম আয়োজন করে, যা ঝেনাইগাতি এবং পরিবেশসহ লোকের সামগ্র ভালবাসার উন্নতি করে। কলেজটি সমাজকে প্রতিদান দেওয়ার বিশ্বাস করে এবং তার ছাত্রদেরকে সম্প্রদায় সেবায় সক্রিয় হতে উৎসাহিত করে।

সংক্ষেপে, ঝিনাইগাতী, শেরপুর আলহাজ্ব শফিউদ্দিন আহমেদ ডিগ্রি কলেজ শিক্ষামূলক উৎকৃষ্টতা এবং সম্প্রেক্ষিত বিদ্যালয় হিসেবে দাঁড়িয়ে দাঁড়ায়। মানসিকতার মাধ্যমে, সামাজিক সম্পর্কে, এবং সম্প্রদায় জুড়ে, এই কলেজ অসংখ্য ব্যক্তিদের জীবনকে পরিবর্তন করার অবদান দিয়েছে। যেখানে এটি তরুণ মনের উৎসাহ এবং পুনর্জাগরণের মাধ্যমে আলোকিত এবং সমৃদ্ধ ভবিষ্যৎ এর মাধ্যমে একটি আরও উজ্জ্বল এবং সমৃদ্ধ ভবিষ্যৎ উদ্ভাবনের মার্গ সৃষ্টি করে।

Leave a Comment